পৃথিবীর ধনীতম ব্যক্তি

আমি পৃথিবীর সবচেয়ে ধনী ব্যক্তিকে দেখেছি, সে প্রায় বছর পনের আগেই। খালি গায়ে, হাফ প্যান্ট পরা এলোমেলো চুলো এক দুষ্ট মুখী কিশোর ছিল সে তখন।
গায়ের গন্ধ মাখা এক ঘোর মফস্বলের আধাপাকা একটি বাড়ি। দুধ-কলা-ভাত খেয়ে ঢেকুর তুলতে তুলতে ঘরের দাওয়া ছোট্ট একটি লাফ দিয়ে পার হয়ে সে নেমে এল ঘন সবুজ শেওলা ধরা উঠানে। সেখানে ঝলমলে রোদের গায়ে হেলান দিয়ে তার মতই এক কিশোর পেয়ারা গাছের পাতারা গল্প করছিল। সোনালী-কালো ছায়ায় চরণ ছুঁতেই তারা একটু নড়েচড়ে বসল যেন। হাতের ছড়িটি ঘোরাতে ঘোরাতে রাজার মত বড় বড় পা ফেলে ঊঠে বসল সে পেয়ারা গাছটিতে। যেন সেটাই তার আসন। গাছটির এমন একটি জায়গায় সে বসল যেন হাত বাড়িয়ে এখন পেয়ারা দিয়েই খাবার শেষে ফলাহার পর্ব সারবে। তারপর এতক্ষণ নিরীক্ষণরত এই অভাজনের দিকে তাকিয়ে সে এমনভাবে হাসল যার অর্থ – সে এখন গাছটির সমগ্র কাঁচা পাকা পেয়ারা্র মালিক। আমি তখন অনুভব করলাম, যার পেয়ারা গাছ আছে ইচ্ছেমত খাবার জন্য সেই পৃথিবীর সবচেয়ে ধনী। আর এখন অনুভব করলাম, শুধু পেয়ারা গাছ না, পেয়ারা গাছের মালিকের ঐ নিষ্পাপ খুশিটুকুও চাই ধনী হতে হলে। এখন কোথাও নিষ্পাপ খুশি নেই, তাই কোন ধণীও নেই এই পৃথিবীতে আর, আমার চোখে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন:

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Follow

Get the latest posts delivered to your mailbox:

Free SSL