পিকের কথা

Pk movie, pk, sharmaluna blog

সবাই পিকে নিয়ে লিখছে এবং বলছে। বলতে বা লিখতেই হবে। কারণ, সেটা পিকে টিমের যোগ্যতা। যাহোক, দেখা শেষ করলাম। খারাপ লাগার মত আসলে কিছু নেই। তাদেরই খারাপ লাগার কথা যারা ধর্ম নিয়ে হীনম্মন্যতা কিংবা চুলকানিতে ভোগে। তবে-

১। কোথাও কোথাও আমার মনে হয়েছে আমীর ইসলাম ধর্মের ত্রুটি দেখাতে সাহসের ঘাটতি দেখিয়েছেন। সেটা আমীর বা হিরানীর সততার অভাব হয়তো নয়, বরং এই জনগোষ্ঠীর মানুষ নিজ ধর্মের সমালোচনা আসলে কতটা গ্রহণ করতে প্রস্তুত সেটা নিয়ে হয়তো তাদের সংশয় ছিল। তাছাড়া আমীর নিজেও একজন মুসলিম, নিজ ধর্মের ত্রুটি দেখানো খুব বেশি হয়তো তার নিজের ও ভাল লাগত না। তিনি যে এ ছবিতে অভিনয় করে এতটা সাহস এবং প্রগতিশীলতা দেখিয়েছেন সেটাই প্রশংসনীয়। তবে হিন্দু বা খৃষ্টান ধর্মের অপব্যবহারগুলো খুব ভালভাবে এসেছে যা আসলেই দারুণ ও অভিনব। এই দুই ধর্মের মানুষদের সমালোচনা নেবার ক্ষমতা বেড়েছে ও বাড়বে নিঃসন্দেহে। তাছাড়া ঈশ্বর বা কোন নির্দিষ্ট ধর্মকে নয়, এ ছবিতে আক্রমণ করা হয়েছে ধর্মের অপব্যাবহারকারীদের। বুদ্ধিস্টদের কিছুই আসেনি। যাহোক, চলচিত্র কোন ডকুমেন্টারী নয় যে তাতে ভুরি ভুরি তথ্য থাকবে। সবকিছু আশা করা ঠিক না।

২। ধর্ম যে এই উপমহাদেশের মানুষের একটা কঠিন অস্তিত্ব সংকটময় সমস্যা সেটা বোঝা গেল। এবং সম্পূর্ণই এটা কৃত্রিম। মানুষের ক্ষুধা, দারিদ্র্য, অশিক্ষাসহ প্রচুর সমস্যা আছে, অথচ সেটা দূর করার জন্য দরকার লাইব্রেরী এবং বিজ্ঞানাগার, ভাল সিস্টেম, অথচ ক্রমাগতভাবে বেড়ে চলেছে মসজিদ-মন্দির-গীর্জা। সৃষ্টিকর্তার থাকার জায়গার এতই কি অভাব নাকি যে তার নামে এত ঘর বানাতে হবে!

৩। ধর্মের অপব্যবহারকারীরা ভয়ের ব্যাবসা খুব ভাল বোঝে। এটা এখন কোন প্রায় মূলধন ছাড়া ১০০% লাভজনক ব্যাবসা। এটা ১০০% হালাল লোভের ব্যাবসাও বটে।

৪। মানবজীবনে সেক্স যেমন প্রাইভেট ব্যাপার, ধর্মও তেমনি প্রাইভেট ব্যপার। মাইকে গলা ফাটিয়ে কিংবা ঘন্টা বাজিয়ে ঘোষণা দিয়ে সৃষ্টিকর্তার সাথে কানেকশন লাগালে বেশিরভাগ সময় তা রঙ নাম্বারেই যাবে। তাই যত আড়ালে নিভৃতে তার সাথে যোগাযোগ করা যায় ততই তা মধুর হয়।

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন:

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Follow

Get the latest posts delivered to your mailbox:

Free SSL