বাংলাদেশ থেকে Brain Drain – লাভ কার?

ইন্ডিয়ান কোন ভাল লেখকের বই যখন পড়ি, ভাল কোন চলচিত্র বা গান বা যেকোনো কিছু যখন জানতে থাকি অনেক গভীরে গিয়ে, সত্যিই অবাক লাগে আবার একই সাথে দুঃখও লাগে। কারণটা বলছি।

হিন্দু-মুসলিম টানাপড়েনে ক্ষতিগ্রস্ত হয় সবসময় বাংলাদেশ। এই ছোট্ট ভূখণ্ড থেকে যে পরিমাণ Brain Drain হয়েছে এবং এখনও হচ্ছে সেটা দিয়ে আরেকটা দেশ এটার চেয়ে ভালভাবে চালানো যায়। আর লাভবান হয় সবসময় ভারত বা আমেরিকা। ভারতের সর্বক্ষেত্রে ৮০ ভাগ যুগ সৃষ্টিকারী মেধাবী আর বুদ্ধিজীবী বাঙ্গালী। তাঁর মধ্যে বেশিরভাগের পূর্বপুরুষই আবার বাংলাদেশ থেকে Migrate হওয়া। ভারতের ৯ জন নোবেল বিজেতার মধ্যে ২ জন বাঙ্গালী এবং তাদের দুইজনেরই বাংলাদেশের সাথে রক্তের আর হৃদয়ের সম্পর্ক গভীর। আর ২ জন অস্কার বিজেতার মধ্যে ১ জন বাঙ্গালী। রয়। তাঁর পূর্বপুরুষও এই বাংলারই। তারা আবার এদেশে ক্রিকেট খেলা প্রচলনের উদ্যোক্তাও। এসব বড় কিন্তু মাত্র একটি-দুটি উদাহরণ। তবে এদের বাদ দিয়েও অজস্র প্রতিভাবান মাইগ্রেটেড বাঙ্গালী আছেন যার তালিকা অনেক লম্বা। লাখো মেধাবী মানুষ আছেন যারা অবদান রেখে যাচ্ছেন সর্বক্ষেত্রে এবং যারা এখানকারই হবার কথা ছিল। এরকম একটা তালিকা করলে চমকপ্রদ সব তথ্য আর গল্প বের হয়ে আসবে যেটা বাংলাদেশের জন্য মোটেই গৌরবের বিষয় হবেনা।

তাই যখন দেখি কেউ মাইগ্রেটেড হচ্ছে, দুঃখ হলেও তাঁকে সাধুবাদ জানাই। কেননা এ ভূমিতে বিকাশ নেই। এ ভূমির মাটি জন্মানোর জন্য ভাল হলেও বিকাশের জন্য যে আলো-হাওয়া প্রয়োজন তা দূষিত, তাতে বিষ মিশে আছে। সে বিষ নানা রকম হতে পারে, রাজনৈতিক, সাম্প্রদায়িক কিংবা পরিবেশগত।

সহনশীলতা, ইতিহাস ও ঐতিহ্যকে রক্ষা করার সংস্কৃতি এদেশের মানুষের গড়ে ওঠেনা। কারণটা আসলে এদেশের মানুষের চর্চার সাথে সাংঘর্ষিক। এখন যেখানে মানুষ শুধু মানুষকে নিয়ে ভাবার কথা, কোন বিশেষ ধর্ম-গোষ্ঠী বা সীমানার পরিচয়ে নয়, তখন এদেশের মানুষের চর্চা পশ্চাতমুখীই হচ্ছে। মাইগ্রেশন বেড়েই চলে। ক্ষতিও বাড়তেই থাকে।

ফেসবুকের মাধ্যমে মন্তব্য করুন:

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

Follow

Get the latest posts delivered to your mailbox:

Free SSL